পৃথিবীর কিছু নিষিদ্ধ স্থানসমূহ যেখানে যাওয়ার অনুমতি নেই।

আজকের এই উন্নত প্রযুক্তির যুগে এটা বিশ্বাস করা সত্যি কঠিন যে, পৃথিবীতে এমন কিছু স্থান রয়েছে যেগুলোতে আপনার আমার মত সাধারন মানুষের জন্য ভ্রমণ করা সম্ভব নয়। না, তার মানে এই নয় যে মানুষ এখনও সেই সকল স্থানগুলো আবিষ্কার করতে পারেনি বরং বিভিন্ন কারনে সেই স্থানগুলোকে করা হয়েছে নিষিদ্ধ। স্থানগুলো নিষিদ্ধ করা হয়েছে তার ভঙ্গুর প্রাকৃতিক ল্যান্ডমার্ক, গোপনীয় সামরিক ঘাঁটি, নিষিদ্ধ দ্বীপসমূহ, এমনকি অস্বাভাবিক ক্রিয়াকলাপের কারণে! তো আসুন একটি ভার্চুয়াল ট্যুর দিয়ে আসি সেই সকল স্থানগুলো থেকেঃ-

ভ্যাটিকান সিক্রেট আর্কাইভস, ভ্যাটিকান

নিষিদ্ধ
The Vatican Secret Archives By Collective – Video of Vatican Television Center, CC BY 3.0, Link

গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় কাগজপত্র, চিঠিপত্র এবং বহু শতাব্দী ধরে গির্জার সংগৃহীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য দস্তাবেজ সমৃদ্ধ ভ্যাটিকান সিক্রেট আর্কাইভ বিশ্বের সবচেয়ে নিষিদ্ধ জায়গাগুলির মধ্যে অন্যতম। বস্ত্তত, ১৮৮১ সালে পোপ Leo XIII গবেষণার কাজে কিছু গবেষকদের এই দুর্লভ আর্কাইভে প্রবেশ করার অনুমতি দেন। বর্তমানে, শুধুমাত্র উচ্চ যোগ্যতাসম্পন্ন গবেষকরাই আর্কাইভে প্রবেশের জন্য আবেদন করতে পারেন। তবুও, গবেষকরা আর্কাইভে কি কি দস্তাবেজ দেখতে পারবে তার উপর কঠোর সীমাবদ্ধতা রয়েছে।

উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপ, ভারত

CC BY-SA 3.0, Link

উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপটি আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের একটি দ্বীপ যা রাজনৈতিকভাবে ভারতের অন্তর্গত। দ্বিপটি তার ছবির মতো সুন্দর সৈকত এবং বুনো প্রকৃতির জন্য বিখ্যাত। বহিরাগতদের প্রতি স্থানীয় আদিবাসীদের মনোভাবের অত্যন্ত বিরূপ এবং আক্রমণাত্মক।

বহির্বিশ্বের সাথে তাদের কোন প্রকার সম্পর্ক নেই। এমনকি বলা হয়ে থাকে যে, সেন্টিনেলী জনগোষ্ঠীরা পৃথিবীর একমাত্র জনগোষ্ঠী যাদের সাথে  বহির্বিশ্বের কোন প্রকার সম্পর্ক নাই। এটা বলা বাহুল্য যে, এই দীপে প্রবেশ কঠোরভাবে নিষিদ্ধ ।

লাসকো গুহা, ফ্রান্স

Lascaux painting.jpg
লাসকো গুহার একটি চিত্রকর্ম photo: public domain

দক্ষিণ-পশ্চিম ফ্রান্সে অবস্থিত, লাসকো গুহাটির মধ্যে প্রাগৈতিহাসিক কালের ৯০০ টির মত দুর্লভ দেয়াল চিত্র আবিষ্কৃত হয় ১৯৪০ সালে। ১৮ বছরের মারকেল রেভিডেট (Marcel Ravidat) প্রথম গুহাটির সন্ধান পান।

৫০ এর দশক থেকেই গুহাটির চিত্রগুলো ফাঙ্গাল দ্বারা আক্রান্ত হয়, ফলে চিত্রকর্মগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে শুরু করে। ১৯৬৩ সালে গুহাটিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। যদিও সীমিত সংখ্যক দর্শক সপ্তাহে এক দিন গুহায় প্রবেশের সুযোগ পান। তবে তা শুধু কয়েক মিনিটের জন্য।

এরিয়া ৫১, নেভাদা, আমেরিকা

এরিয়া ৫১

নেভাদা মরুভূমির মাঝখানে অবস্থিত এরিয়া ৫১ একটি গোপন আমেরিকান সামরিক বেস যার উদ্দেশ্য সম্পর্কে মানুষ এখনো তেমন কিছু জানে না। বেসের ভিতরে কি হচ্ছে তা নিয়া প্রচলিত আছে অনেক কন্সপাইরেসি থিওরি, তার মধ্যে আছে বিখ্যাত এলিয়ন থিওরিও। যাইহোক, সম্ভবত এয়ারক্রাফট এবং অস্ত্রের উন্নয়ন এবং পরীক্ষার জন্য বেসটি ব্যাবহার করা হয়। তবে একটা জিনিস নিশ্চিত যে, এরিয়া ৫১ এ যা কিছু ঘটেছে তা জনসাধারণের পক্ষে জানা সম্ভব নয় কারণ এরিয়া ৫১ এবং এর আশেপাশের এলাকা খুবই সতর্কতার সাথে পাহারা দেওয়া হয়। এরিয়া ৫১ জনসাধারণের জন্য সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ

রুম ৩৯, উত্তর কোরিয়া

রুম ৩৯ উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক কিম পরিবারের একটি গোপন সংগঠন। এটি উত্তর কোরিয়ার একটি পার্টি সংগঠন যা দেশের নেতাদের জন্য বিদেশী মুদ্রা স্লাশ্ তহবিল বজায় রাখার উপায় খুঁজে বের করে। কিছু ক্ষেত্রে তারা বৈধ উপায়ে এবং কিছু ক্ষেত্রে অবৈধভাবে টাকা আয় করে। এর মধ্যে জালিয়াতি এবং মাদক চোরাচালানের মত কাজও অন্তর্ভুক্ত। ধারনা করা হয়, রুম ৩৯ রাজধানী পিয়ংইয়াং এর ওয়ার্কার্স পার্টির বিল্ডিংয়ের ভিতর অবস্থিত।

উমেরা টেস্ট রেঞ্জ, অস্ট্রেলিয়া

Skylark launch for NASA.tiff‘উমেরা নিষিদ্ধ এলাকা’ হিসাবে পরিচিত, উমেরা টেস্ট রেঞ্জ হল পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মিলিটারি টেস্টিং রেঞ্জ। উমেরা রেঞ্জ কমপ্লেক্স অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্স ফোর্স (ADF) এর একটি বিভাগ যা রয়েল অস্ট্রেলিয়ান এয়ার ফোর্স (RAAF) দ্বারা পরিচালিত হয়। প্রায় ১২২,০০০ বর্গ কিলোমিটার (৪৬,০০০ বর্গ মিটারেরও বেশি)  জায়গা নিয়ে অবস্থিত এই রেঞ্জটি অ্যাডিলেডের উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত। ১৯৪৭ সালে রেঞ্জটিকে জনসাধারণের জন্য নিষিদ্ধ এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

মেট্রো ২, রাশিয়া

মেট্রো ২, রাশিয়া By Anakinhttp://wiki.nashtransport.ru/wiki/Д6, CC BY 3.0, Link

এছাড়াও কোডডনাম D-6 নামে পরিচিত, ‘মেট্রো 2’ একটি গোপন ভূগর্ভস্থ সিস্টেম যা মস্কো, রাশিয়ায় নির্মিত হয়েছিল। স্ট্যালিনের সময়কালে নির্মিত, মেট্রো ২ এর মধ্যে ক্রেমলিন, জেনারেল স্টাফ একাডেমী, জ়েলটোভস্কির বাড়ি এবং ভনুকোভো 2 বিমানবন্দর সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সরকারী ও প্রশাসনিক প্রতিষ্ঠানগুলি সংযুক্ত রয়েছে। বলা হয় থাকে যে মেট্রো ২ এর চারটি লাইন রয়েছে এবং এটি ৫০-২০০ মিটার (১৬৫-৬৬০ ফুট) গভীরে অবস্থিত।

স্নেক আইল্যান্ড, ব্রাজিল

Ilha da Queimada Grande - Itanhaém3.jpg
Ilha da Queimada Grande By Prefeitura Municipal de Itanha̩m Рhttp://www.flickr.com/photos/governomunicipaldeitanhaem/6053654521/in/photostream/, CC BY 2.5, Link

আনুষ্ঠানিকভাবে Ilha de Queimada Grande হিসাবে পরিচিত, সাপের দ্বীপ ব্রাজিলের সাও পাওলো উপকূলে অবস্থিত। প্রচুর সাপের জন্য বিখ্যাত এই দ্বিপটি। পৃথিবীর একমাত্র দ্বীপ স্নেক আইল্যান্ড যেখানে গোল্ডেন ল্যান্সহেড ভাইপার দেখা যায়। এই সাপের বিষ এতই শক্তিশালী যে এটি মানুষের দেহকে গলিয়ে দিতে পারে! তাই ব্রাজিলিয়ান সরকার দীপটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।

হোয়াইট’স জেন্টলম্যান ক্লাব, ইংল্যান্ড

White's club
হোয়াইট’স জেন্টলম্যান ক্লাব, By PAUL FARMER, CC BY-SA 2.0, Link

সেন্ট্রাল লন্ডনের সেন্ট জেমস স্ট্রিটে অবস্থিত, হোয়াইট’স জেন্টলম্যান ক্লাব লন্ডনের সর্বাধিক ঐতিহ্যবাহী ভদ্রলোকের ক্লাব এবং সম্ভবত বিশ্বেরও। ১৬৯৩ খ্রিস্টাব্দে এই ক্লাবটি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং এখন পর্যন্ত তার ‘শুধু পুরুষ’ নীতিটি বজায় রেখেছে। এই ক্লাবের সদস্য কে হন ? এই অত্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ ক্লাবের বর্তমান সদস্য, উদাহরণস্বরূপ, প্রিন্স চার্লস, প্রিন্স উইলিয়াম, টম স্ট্যাসি ইত্যাদি।

স্পাই জাদুঘর, চীন

পূর্ব চীনের নানজিংয়ের জিয়াংসু ন্যাশনাল সিকিউরিটি এডুকেশন জাদুঘরটি একটি গুপ্ত জাদুঘর যা বিদেশী দর্শকদের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়ার জন্য বিশেষভাবে পরিচিত। জাদুঘরের পরিচালক মতে, প্রদর্শনী আইটেম, যেমন ক্ষুদ্র পিস্তল, ক্ষুদ্রকায় ক্যামেরা এবং অন্যান্য জিনিসপত্র “বিদেশীদের জন্য খুব সংবেদনশীল হতে পারে।” চীনা দর্শকদের জাদুঘরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়, কিন্তু তারা ভিতরে কোনও কিছুর ছবি তুলতে পারবে না।

চিচেন ইতজা পিরামিড, মেক্সিকো

Chichen Itza 3.jpg
El Castillo By Daniel SchwenOwn work, CC BY-SA 4.0, Link

চিচেন ইতজা পিরামিড মায়ানদের তৈরি করা একটি বিখ্যাত স্থাপনার ধ্বংসাবশেষ এবং প্রত্নতাত্ত্বিক সাইট।ইউকাতানে অবস্থিত জনপ্রিয় পর্যটক আকর্ষণ। সাইটটি প্রতি বছর প্রায় ১৫ লক্ষ দর্শকে আকর্ষণ করে। যাইহোক, সাইটের সবচেয়ে আইকনিক পিরামিড El Castillo বর্তমানে আর জনসাধারণের জন্য  খোলা নয়। ২০০৬ সালে El Castillo সর্বসাধারণের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

টম্ব অফ কিন শি হুয়াং, চীন

নিষিদ্ধ
টেরাকোটা আর্মি By BrokenSphereOwn work, CC BY-SA 3.0, Link

চীনের প্রথম সম্রাট এবং কিয়ান রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা কিন শি হুয়াং এর সমাধি যা মধ্য চীনের একটি পাহাড়ের নীচে অবস্থিত। সমাধিসৌধের ভূগর্ভস্থ গুহাগুলির একটি জটিল নেটওয়ার্ক রয়েছে যা সম্রাটের পরবর্তী জীবনযাত্রার প্রয়োজনে হবে এই বিশ্বাসে তৈরি করা হয়েছিল, সমাধিসৌধে মাটির তৈরি সেনাবাহিনীর নির্মাণ করা হয়েছিল যা টেরাকোটা আর্মি নামে পরিচিত।

Author

Recent Posts

This Post Has 2 Comments

  1. তথ্যবহুল। অনেক কিছু জানলাম।

Leave a Reply

eighteen − two =

Close Menu